ডিজিটাল মার্কেটিং এর মাধ্যমে কিভাবে ব্যবসার অগ্রগতি নিশ্চিত করবেন?

ডিজিটাল মার্কেটিং এর মাধ্যমে কিভাবে ব্যবসার অগ্রগতি নিশ্চিত করবেন?

আমরা আমাদের ব্যবসার প্রচার,প্রসারের এবং বিক্রয় বাড়ানেরা জন্য কত কিছুই না করে থাকি। যেমন ধরুন ব্যয়বহুল বিজ্ঞাপন, হাই-ফাই ডেকোরেশন, বিজনেস কার্ড বিতরণ, চোখ ধাঁধানো বিলবোর্ড এবং অফার/ছাড়ের মত বিভিন্ন বহুল প্রচলিত পুরাতন পন্থা। কিন্তু আপনি কি কখনো আপনার ব্যবসাকে একটি ডিজিটাল পরিচিতি প্রদানের কথা ভেবেছেন? হয়তোবা ভাবেননি, অথবা ভাবলেও যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণ করেননি।

তাই YappoBD-এর পক্ষ থেকে আজ আমরা আলোচনা করতে যাচ্ছি বর্তমানে যেকোনো ব্যবসার ক্ষেত্রে Digitization এর মাধ্যমে অগ্রগতি নিশ্চিত করা যায় এবং YappoBD আপনার ব্যবসার জন্য কি কি ইতিবাচক পদক্ষেপ গ্রহণ করে থাকে।যেহেতু, বর্তমানে ইন্টারনেট আমাদের জীবনের প্রতিটি পর্যায়ে প্রবেশ করেছে, এবং তা অস্বীকার করার কোন অবকাশ নেই। আমাদের প্রাত্যহিক যেকোনো জিজ্ঞাসার উত্তর পেতে গুগল এখন আমাদের একমাত্র ভরসার মাধ্যম হয়ে উঠেছে।

Digital Marketing Tips

এখন আপনার প্রধান প্রশ্ন হতে পারে এগুলোর সাথে আমার ব্যবসার প্রচার এবং প্রসারের সম্পর্ক কি??

এই প্রশ্নের উত্তর সহজভাবে দিতে গেলে আমরা বলতে পারি, গুগলে এসব সাধারণ জিজ্ঞাসাকারীদের জিজ্ঞাসার ভিত্তিতে যদি আমরা তাদের প্রয়োজনীয় উত্তর এবং চাহিদা অনুযায়ী সেবার বিবরণ তাদের সামনে উপস্থাপন করতে পারি সেক্ষেত্রে তাদের মনে উত্তরকারীদের প্রতি একপ্রকার আস্থার তৈরি হয়। যা আপনার পন্য বা সেবার জন্য একজন সম্ভাব্য গ্রাহক তৈরিতে সহায়তা করে।

আপনার ব্যবসার নিশ্চিত অগ্রগতি সাধনে YappoBD নিম্নোক্ত ৫-টি যুগান্তকারী পদক্ষেপ গ্রহণ করে থাকে।

সোশ্যাল মিডিয়া গুলোতে একটি শক্তিশালী উপস্থিতি নিশ্চিত করা।

যেতেহু, বর্তমানে সোশ্যাল মিডিয়াগুলো যেকোনো ব্যবসার ক্ষেত্রে সবচেয়ে কার্যকারী মাধ্যম হিসাবে কাজ করছে তাই আপনার ব্যবসার উন্নতিকল্পে সোশ্যাল মিডিয়াকে এড়িয়ে যাওয়া অসম্ভব। অনেক সফল ব্যবসা যা আজ শুধুমাত্র ফেসবুক এবং অন্যান্য জনপ্রিয় সোশ্যাল মিডিয়া গুলোতে তাদের গ্রাহক বেজ হিসাবে তৈরি করে আজ সফল। অনলাইনে সম্ভাব্য গ্রাহকদের সাথে সম্পৃক্ততা তৈরি আপনার কাছে অনার্থক মনে হলেও বর্তমানে এর কোন বিকল্প নেই। কেননা, বর্তমানে শুধুমাত্র একটি বাটনে ক্লিক করার মাধ্যমে আপনি নিমিষেই লক্ষাধিক মানুষের কাছে আপনার উপস্থিতি নিশ্চিত করতে পারেন।

যেহেতু, সোশ্যাল মিডিয়া আপনার যেকোনো কার্যকলাপের প্রতিক্রিয়া স্বরূপ মন্তব্যের অনুমতি দিয়ে থাকে তাই তাৎক্ষনিক-ভাবে সবার সাথে একটি যোগাযোগের সুযোগ সৃষ্টি হয়। তাছাড়াও ফেসবুক, টুইটার, ইন্সটাগ্রাম সহ অনেক ধরনের সোশ্যাল মিডিয় প্লাটফর্ম গ্রাহকদের সাথে সরাসরি যোগাযোগের জন্য মেসেজিং-এর অনুমতি দিয়ে থাকে।

সাপ্তাহিক একটি ব্লগ প্রকাশ করুন যা বাস্তবমূখী গুরত্ব বহন করে।

ব্লগ হচ্ছে যেকোনো ব্যবসা বা ব্যক্তির ফলোয়ার বাড়ানোর একটি কার্যকারী উপায়। কেননা, ব্লগ হচ্ছে আপনার পণ্য, ব্যবসা এবং শিল্প সম্পর্কিত যেকোনো তথ্য উপস্থাপনের সেরা একটি জায়গা। একটি দুর্দান্ত ব্লগ থাকা কেবল সম্ভাব্য গ্রাহকদেরকেই মোহিত করবে না, এটি আপনার ব্র্যান্ড ভ্যালু এবং খ্যাতিও বাড়িয়ে তুলবে। যদি আপনি আপনার গ্রাহকদের জন্য প্রতিনিয়ত আপনার ব্লগে মূল্যবান কোন তথ্য উপস্থাপন করতে থাকেন, তাহলে তারা বারবার আপনার ব্লগেই ফিরে আসবে।

যে কোনও সফল ব্লগের শিরোনাম হ’ল উচ্চমানের কন্টেন্ট। আপনি যখন আপনার ব্র্যান্ড এর জন্য একটি ব্লগ তৈরির কথা ভাবছেন তার আগেই আপনি আপনার শ্রোতাদের জন্য কি ধরনের ভ্যালু অ্যাড করবেন সেটি সম্পর্কে একটি সু-স্পষ্ট ধারনা রাখুন। আপনার ব্র্যান্ডের জন্য ব্লগ থাকা মানে এই না যে, তাতে আপনার প্রতিনিয়ত পোস্ট করতে হবে। তাছাড়াও অনেকগুলি আনুষঙ্গিক বিষয় আমাদের সবসময় খেয়াল রাখতে হবে। প্রতিটি ব্লগ পোস্টের জন্য আপনাকে সোশ্যাল মিডিয়াগুলোতে সাড়া জাগানোর মত একটি উদ্দীপনা তৈরি করতে হবে। 

আপনি আপনার ব্লগ এর অধিকতর প্রচারণার জন্য আপনি মিডিয়াম, লিংকডইন, রেডডিট এবং কোওড়ার মতো প্ল্যাটফর্মগুলিও ব্যবহার করতে পারেন। এসকল সাইটগুলোতে সবসময় বিশাল আকারের  একটি অডিয়েন্স সমাগম থাকায় আপনি তাৎক্ষনিক ভিজিবিলিটি পেতে সক্ষম হবেন।

Search Engine Optimization এর গুরত্বের দিকে মনোনিবেশ করুন।

আপনি যদি আপনার ওয়েব সাইটের প্রচারণার জন্য বিশ্বের সকল প্রকার উৎস এবং সময় ব্যয় করে থাকেন, তথাপি একটি শক্তিশালী SEO strategy ব্যতীত আপনার ব্যবসা সম্ভাব্য গ্রাহকের কাছে কখনোই উপস্থাপিত হবে না। তাই আপনার ব্যবসা সংক্রান্ত সকল প্রকার তথ্য যেগুলো আপনি আপনার ব্লগে উপস্থাপন করেছেন সেগুলোর অবস্থান সার্চ ইঞ্জিন এর প্রথম পাতায় দৃশ্যমান করার জন্য আপনাকে অবশ্যই শক্তিশালী SEO strategy অবলম্বন করতে হবে। অনেকেই মনে করে এস,ই,ও হলো একটি সময় সাপেক্ষ-এবং চেষ্টা অপেক্ষা মূল্যহীন। তবে এস,ই,ও হলো দীর্ঘমেয়াদে উচ্চ-টার্গেট-যুক্ত ট্র্যাফিক তৈরির একটি সবচেয়ে কার্যকর পন্থা।

এস,ই,ও হতে পারে আপনার ব্যবসার ডিজিটাল মার্কেটিং এর সর্বাধিক কার্যকর একটি মাধ্যম যদি আপনি জানেন কিভাবে এর ব্যবহার করা যায়। অনেকেই তাদের ব্যবসাকে শর্টকাটে অর্গানিক ভিজিবিলিটি প্রদানের জন্য স্প্যামি লিংক তৈরি করে থাকে,যদিও স্বল্প সময়ের জন্য এই পন্থা কাজে দেয় কিন্তু দীর্ঘ মেয়াদে এটিই ব্যবসার ক্ষতির কারণ হয়ে থাকে।

যখন আপনি দ্বিধাগ্রস্ত থাকবেন এই  বিষয় নিয়ে যে, সার্চ-ইঞ্জিনগুলোর অ্যালগরিদম Rank প্রদানের ক্ষেত্রে কিভাবে কাজ করে, তখন আপনি আপনার সাইটে আগত ভিজিটরদের বুঝতে আরও সহজ হয় এবং আরও বাস্তবিক কন্টেন্ট সরবরাহের দিকে মনোনিবেশ করুন।

লিড ম্যাগনেট তৈরি করুন।

Are you Confused In this Step!? আপনার মনে অবশ্যই প্রশ্ন হতে পারে লিড ম্যাগনেট আবার কি? লিড ম্যাগনেট হচ্ছে আপনার গ্রাহকের জন্য কোন ল্যান্ডিং পেজ হতে তাদের সাথে যোগাযোগের সাধারণ তথ্য সাবমিশনের মাধ্যমে কোন পি,ডি,এফ ই-বুক ইত্যাদি বিনামূল্যে ডাউন-লোডের একটি সিস্টেম। আর এই সিস্টেম এর মাধ্যমে আমার আমাদের সম্ভাব্য গ্রাহকদের সাথে পরবর্তীতে সরাসরি যোগাযোগের জন্য বিভিন্ন প্রকার তথ্য যেমন: ইমেইল,ফোন নাম্বার ইত্যাদি পেয়ে থাকি।

আপনি যখন লিড ম্যাগনেট এর ব্যবহার করে আপনার আদর্শ গ্রাহক বা ক্লায়েন্টেলকে লক্ষ্য করে তাদের কাছে কোন অফার বা প্রমোশন এর ফলো-আপ পাঠাবেন তখন আপনার ব্যবসার সাফল্য অনিবার্য। একটি  দূর্দান্ত লিড ম্যাগনেট তৈরির কার্যকরি কৌশলটি হ’ল আপনার টার্গেট গ্রাহকদের চাহিদার পয়েন্টগুলি চিহ্নিত করা এবং একটি সহজ এবং উপযুক্ত সমাধান সরবরাহ করা।

একটি ইমেইল লিস্ট তৈরি করুন এবং এর যথার্থ রক্ষণাবেক্ষণ করুন।

ইমেইল লিস্ট আপনাকে আপনার ব্যবসা সম্পৃক্ত সম্ভাব্য গ্রাহদের সাথে সরাসরি যোগাযোগের একটি দিক উন্মোচন করে দেয়। আর লিড ম্যাগনেট ব্যবহার করে আপনি খুব সহজেই একটি শক্তিশালী ইমেইল লিস্ট তৈরি করতে পারেন। ফেসবুক বা টুইটারে আপনার যদি 20,000 ফলোয়ার থাকে এবং আপনি যদি কোন পোষ্ট করেন তবে তারা আপনার পোস্টগুলি যে দেখবেই এমন কোনও গ্যারান্টি নেই। আর সবথেকে খারাপ বিষয়, এই প্ল্যাটফর্মগুলি সব সময় তাদের অ্যালগোরিদমগুলি পরিবর্তন করে চলেছে। কিন্তু ইমেইল লিস্ট আপনাকে আপনার গ্রাহক নিয়ন্ত্রণের পূর্ণ অধিকার দিয়ে থাকে। কোন কার্যকর সেলস্ ফানেলের প্রধান উপাদান হলো ইমেইল লিস্ট।

গ্রাহকদের সাথে আপনার সম্পর্ক আরও গভীর করতে আপনার ইমেইল লিস্টের যথাযথ ব্যবহার নিশ্চিত করুন। তাদের কাছে এমন সব কন্টেন্ট সরবরাহ করতে হবে যার বাস্তবিক প্রয়োগ আছে এবং গ্রাহকগণ উপকৃত হয়। MailChimp এবং Constant Contact -এর মত অনেক টুলস আছে যেগুলির মাধ্যমে আপনি আপনার গ্রাহকের গতি এবং প্রকৃতির উপর ভিত্তি করে বিভিন্ন ধরনের অফার এবং প্রমোশন তাদের কাছে সরাসরি প্রেরণ করতে পারেন। 

শেষ কথা..

কার্যকর ডিজিটাল মার্কেটিং আপনার ব্যবসার মূল চাবিকাঠি। উপরোক্ত কৌশলগুলির সম্পাদন নিঃসন্দেহে আপনাকে এই লক্ষ্য অর্জনে সহায়তা করবে। মনে রাখবেন ডিজিটাল মার্কেটিং যে সব সময় ব্যয়বহুল হবে এটি পুরোপুরি সঠিক নয়। YappoBD এক্ষেত্রে আপনার সকল সীমাবদ্ধতার সমাধন করে দিতে প্রস্তুত। আমাদের উপর আস্থা এবং বিশ্বাসের মূল্য আপনাকে নিমিষেই আপনার সেলস এবং রেভেনিউ বৃদ্ধির মাধ্যমে আপনার কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যে পৌঁছাতে সহায়তা করবে। YappoBD এর সেবা পেতে যোগাযোগ করুন

Facebook Comment