You are currently viewing সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার কেন গুরুত্বপূর্ণ এবং সুবিধা কি?

সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার কেন গুরুত্বপূর্ণ এবং সুবিধা কি?

বাংলাদেশসহ সারাবিশ্বে মানুষের এখন  সোশ্যাল মিডিয়ায় নির্ভরশীলতা বাড়ার সাথে সাথে, ব্যবসাগুলোর প্রচার প্রচারণা ও যেন হয়ে গেছে অনলাইন ভিত্তিক। তবে ব্যবসা অনলাইন হোক বা না হোক, বিক্রয় বাড়াতে এখন মানুষ তাদের প্রচার এবং ক্যাম্পেইন অনলাইন এর মাধ্যমেই করছে। কারণ এখন মানুষের নজর রেডিও, টেলিভিশন কিংবা সংবাদপত্রের চেয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় বেশি থাকে। এখানে বিজনেস এর প্রচার সহজ এবং ফিডব্যাক ও বেশি পাওয়া যায়। তাই এখন সবার আগ্রহের শীর্ষে আছে সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং। আর সোশ্যাল মিডিয়া তে অ্যাডভারটাইজিং, কন্টেন্ট ক্রিয়েট এবং বিভিন্ন ধরনের কাজ করে একটি প্রতিষ্ঠান এর ভাবমূর্তি বজায় রাখে একজন সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার। একজন সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার বিভিন্ন ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানে কাজ করে থাকে। বর্তমানে ব্যবসায়ের নানা ধরনের কাজে দক্ষ সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার কে নিয়োগ দেওয়া হয়। চলুন পড়ে আসি একজন সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার এর কাজ কি কি, ব্যবসায় সফল হতে হলে একজন সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার কেন গুরুত্বপূর্ণ এবং এর সুবিধাগুলোঃ-

সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজারঃ

একজন প্রফেশনাল সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং ম্যানেজার হায়ার করতে হলে আপনাকে জানতে হবে তিনি আপনার প্রতিষ্ঠান এর কি কি ধরনের কাজ সম্পাদনা করবে।ম্যানেজাররা আপনার বিজনেস বা প্রতিষ্ঠান এর সাথে গ্রাহকদের সুসম্পর্ক স্থাপন করবে। আপনার কোম্পানির ব্র‍্যান্ডিং, অ্যাডভারটাইজিং, কন্টেন্ট রাইটিং, ক্যামপেইনিং, ব্যবসায়িক পরিকল্পনা, মার্কেটিং কৌশল,বাজেট তৈরি থেকে শুরু করে সমস্ত কাস্টমার এর তাৎক্ষনিক প্রশ্নের উত্তর দেওয়া এবং বিভিন্ন তথ্য দিয়ে কাস্টমারদের কে সাহায্য করাই তার কাজ। তাহলে বুঝতেই পারছেন, একজন সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার এর গুরুত্ব কতটা! 

প্ল্যাটফর্ম বাছাই করাঃ 

একজন সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার আপনার প্রতিষ্ঠান এর ব্র‍্যান্ডিং এবং মার্কেটিং কোন প্ল্যাটফর্ম এ করলে বেশি গ্রাহক পাওয়া যাবে তা বাছাই করে থাকে। এর মাধ্যমে আপনার বিজনেস সবার কাছে পৌঁছাতে সক্ষম হবে। ফলে বিজনেসের বিক্রয় ভালো হয়। 

ব্যবসায়িক পরিকল্পনা গ্রহণঃ 

সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার আপনার বিজনেস এর বিভিন্ন ধরনের পরিকল্পনা করে থাকে। কিভাবে একটি বিজনেস কে ভালো পজিশনে দাড় করানো যায়, কিভাবে আই ক্যাচি করে বিজ্ঞাপন দিলে কাস্টমাররা আকৃষ্ট হয়, কিভাবে ছবি এডিটিং করলে দেখতে সুন্দর লাগে ইত্যাদি পরিকল্পনা একজন সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার করে থাকে। 

বাজেট তৈরিঃ 

একটি প্রতিষ্ঠান এর প্রচার প্রচারণা করতে গেলে যত প্রকার খরচ হতে পারে তার সম্ভাব্য বাজেট তৈরি করে থাকে এবং বাজেট অপ্টিমাইজ করার ক্ষমতা রাখে একজন দক্ষ সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার। 

এস.ই.ও কন্টেন্ট তৈরি ও প্রচারঃ 

একজন  দক্ষ ম্যানেজার এর লেখালেখির দক্ষতা ও থাকতে হবে। কারণ বিভিন্ন পোস্ট দেওয়ার সময় তাকে লিখতে হবে। খুব যে আহামরি দক্ষতা থাকতে হবে এমন টা না কিন্তু যাতে সাবলীল ভাষায় গ্রাহকদের কাছে সব তথ্য উপস্থাপন করতে পারে এরকম দক্ষতা থাকতে হবে। গ্রাহকদের সাথে যোগাযোগ করার মত দক্ষতা ও তার থাকতে হবে।  এক্ষেত্রে একজন এক্সট্রোভার্ট মানুষ হলে বেশি ভালো হয় যে কমফোর্টলি সব গ্রাহক কে ম্যানেজ করতে পারবে। তার লেখা গুলো হতে হবে বিষয়ভিত্তিক। বিজনেস কন্টেন্ট লেখার দক্ষতা থাকতে হবে অর্থাৎ অল্প কথায় একজন কাস্টমার কে বোঝাতে হবে আপনি কি বোঝাতে চাইছেন। লেখা সঠিক হতে হবে এবং ইনফোরমেটিভ হতে হবে। একজন সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার এর অবশ্যই এস.ই.ও সম্পর্কে ও বিস্তারিত ধারণা থাকতে হবে। সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম টা বিশাল তাই এই বিশাল প্ল্যাটফর্মে প্রতিষ্ঠান কে সবার সামনে তুলে ধরতে এস.ই.ও কনটেন্ট এর বিকল্প নেই। একজন কাস্টমার গুগল এ  কিওয়ার্ড সার্চ করার মাধ্যমে যাতে আপনার প্রতিষ্ঠান এর সমস্ত তথ্য জানতে পারে, এই জন্য কন্টেন্ট এস.ই.ও করাটা গুরুত্বপূর্ণ। এছাড়া এস.ই.ও কন্টেন্ট রাইটিং এর মাধ্যমে আপনার বিজনেস কে সবার সামনে উপস্থাপন করে। তাই এমন একজন ম্যানেজার কে হায়ার করুন যার এস.ই.ও এবং কন্টেন্ট রাইটিং সম্পর্কে ধারণা আছে।

সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার কেন গুরুত্বপূর্ণ এবং সুবিধা কি?

পিকচার এডিটিংঃ 

অনলাইন প্ল্যাটফর্ম এ মানুষ টেক্সট এর চাইতে পিকচার বেশি পছন্দ করে। দেখা যায়, ১০০০ হাজার ওয়ার্ড লিখে যা বোঝানো সম্ভব না একটা পিকচার দিয়েই তা বোঝানো সম্ভব। তাই অবশ্যই ভালো পিকচার এ্যাড করার দিকে নজর দিতে হবে। এক জরীপে দেখা গেছে, টুইটার এ ১৮ শতাংশের বেশি ক্লিক পড়ে সুন্দর সুন্দর ছবিগুলো তে। টুইটার থেকেও বেশি এগিয়ে আছে ফেইসবুক। ফেইসবুক এ শুধুমাত্র ছবিতেই ১২০ শতাংশের বেশি ভিউ পাওয়া যায়। তাই বোঝাই যাচ্ছে বিজনেস সাকসেস করতে সুন্দর পিকচার এড করার ভূমিকা অনেক। তাই সুন্দর পিকচার এড করার দিকে নজর দেওয়া উচিত। কখনো কেও কেও যে পিকচার টা দেওয়া হয় শুধু সেই পিকচার টা দেখেই চলে যায়। নিচের লেখা টুকু পড়ে দেখে না। আবার কারো কারো টাইম ও থাকে না লেখা পড়ার মত। তাই দক্ষতার সাথে পিকচার এডিটিং করতে হবে যাতে একজন গ্রাহক পিকচার এর মাধ্যমেই সমস্ত তথ্য সম্পর্কে অবগত হয়। এক্ষেত্রে এমন সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার নিয়োগ দিতে হবে যার পিকচার এডিটিং সম্পর্কে ভালো ধারণা আছে। যে ফোটোশপ সফটওয়্যার দিয়ে পিকচার এডিটিং, লোগো ইত্যাদি তৈরি করতে পারবে। এর ফলে আপনার ডিজাইনার ও প্রয়োজন হবে না। 

গ্রাহকদের সাথে সেতুবন্ধনঃ 

একজন সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার এর মূল কাজটাই হলো সে প্রতিষ্ঠান এর সাথে গ্রাহকদের সুসম্পর্ক বজায় রাখবে। গ্রাহকরা যেন কোনো পণ্য সম্পর্কে প্রশ্ন করলে সঠিক ধারণা টা পায় তা নিশ্চিত করবে একজন সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার। গ্রাহকদের কে ভালো ভাবে বোঝাতে সক্ষম হতে হবে কেন তাদের প্রতিষ্ঠান এর প্রোডাক্ট টি কিনলে একজন কাস্টমার উপকৃত হবে। তবে মনে রাখতে হবে প্রতিষ্ঠানের মার্কেটিং এর চেয়ে ব্র‍্যান্ডিং বেশি কাজে দেয়। আবার ভুল ভাবে ব্র‍্যান্ডিং করার ফলে ও প্রতিষ্ঠান এর ক্ষতি হয়ে থাকে৷ তাই এক্ষেত্রে দক্ষ সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার সিলেক্ট করার ক্ষেত্রে ও নজর দিতে হবে। 

সোশ্যাল মিডিয়ায় বিজ্ঞাপন দেওয়ার অভিজ্ঞতাঃ 

প্রতিষ্ঠান এর জন্য ইফেক্টিভ বিজ্ঞাপন দেওয়া টা অনেক জরুরি এবং এটি সবার কাছে পৌঁছাতে পারাটাও অনেক চ্যালেঞ্জিং ব্যাপার। শুধু বিজ্ঞাপন তৈরি করলাম আর সেটা প্রতিষ্ঠান এর জন্য উপযুক্ত হবে এমনটা ও না। বুদ্ধি খাটিয়ে উপযুক্ত বিজ্ঞাপন দিয়ে থাকে একজন দক্ষ সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার। আবার বিজ্ঞাপন এর প্ল্যাটফর্ম বাছাই করাও অনেক গুরুত্বপূর্ণ। বিজ্ঞাপন এর ক্ষেত্রে, ভিডিও তৈরি করে ফেইসবুক এ দেওয়া যায়। আবার বর্তমান এ, পেইড বিজ্ঞাপন গুলো ও অনেক কাজ দিচ্ছে। সোশ্যাল মিডিয়ায় অথবা গুগলে পেইড বিজ্ঞাপন দেওয়ার মাধ্যমে আপনি আপনার বিজনেস এর প্রোডাক্ট গুলো সবার সামনে তুলে ধরতে পারেন।  এক জরীপে দেখা গেছে, প্রায় ৭০ শতাংশ প্রতিষ্ঠান সফলতা পেয়েছে পেইড বিজ্ঞাপন এর মাধ্যমে। তাই কিভাবে বিজ্ঞাপন দিলে সবার কাছে পৌঁছানো সম্ভব, টার্গেটেড কাস্টমারই বা কারা সে সব বিষয়ে একজন সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার এর বেসিক জ্ঞান থাকতে হবে। 

উপরের ব্লগ টি পড়ে আপনি নিশ্চয়ই বুঝে গেছেন আপনার বিজনেস এর ক্ষেত্রে একজন সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার কেন এতটা গুরুত্বপূর্ণ। 

পরিশেষেঃ

সাধারণত বড় বড় বিজনেস ম্যান এর এত সময় থাকেনা সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজমেন্ট করার। গ্রাহকদের সাথে যোগাযোগ করা, রিপ্লে দেওয়া, পোস্ট করা, বিজ্ঞাপন দেওয়া, পিকচার এড করা ইত্যাদি অনেক কাজ। তাই সবাই একজন ভালো সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার কে খোঁজে হায়ার করার জন্য। কিন্তু সব যায়গায় কি আপনি দক্ষ সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার পাবেন? নিশ্চয়ই না। কিছু কিছু এজেন্সি তো মুখে বলে তারা ভালো কাজ করবে কিন্তু করার সময় আর মানসম্মত কাজ পাওয়া যায় না। তাই আপনি যদি সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার হায়ার করতে চান তাহলে আমি রেকোমেন্ড করবো আপনি yappobd.com ওয়েবসাইট থেকে সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার হায়ার করুন। এখানে রয়েছে আপনার মনের মত সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার যে দক্ষতার সাথে আপনার বিজনেস এর সমস্ত কাজ সম্পাদন করতে সক্ষম। তাই দেরি কেনো, আজই যোগাযোগ করুন আমাদের সাথে।

Facebook Comment