You are currently viewing যে ৬ কারণে ই-কমার্স ওয়েবসাইট ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে তৈরি করবোঃ

যে ৬ কারণে ই-কমার্স ওয়েবসাইট ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে তৈরি করবোঃ

করোনা মহামারীর এই সময়ে ই-কমার্স এর দিকে ঝুঁকেছে দেশের অগণিত নারী-পুরুষ। হতে পারে সেটা বেকারত্বের অভিশাপ থেকে মুক্তি পেতে আবার হতে পারে সেটা শখের বশে। যে কারনেই আপনি ই-কমার্স এর দিকে ঝুঁকে থাকুন না কেনো বিজনেস টা কে সামনের দিকে এগিয়ে নিতে আপনার অবশ্যই একটি ই-কমার্স ওয়েবসাইট এর প্রয়োজন হবে। প্রথম এর দিকে সবাই ভাবে যে এফ কমার্স অর্থাৎ ফেসবুক কমার্স তার বিজনেস কে গ্রো করার জন্য যথেষ্ট। কিন্তু এফ কমার্স এ নানা ধরনের জটিলতা লক্ষ্যণীয়। তার মধ্যে উল্লেখ্যযোগ্য হলোঃ- পণ্যের দাম এবং মান দুইটা জানাতে হলেই আপনাকে ইনবক্সে নিয়ে আসতে হচ্ছে কাস্টমার কে, কিছু অসাধু ব্যাবসায়ীদের জন্য ফেসবুক পেইজ কেও এখন মানুষ আর বিশ্বাস করতে চায় না, এক সাথে অনেক মানুষ কে সার্ভিস দেওয়া কষ্ট সাধ্য হয়ে ওঠে। এই সমস্ত কারণে আপনার ই-কমার্স বিজনেস এর জন্য একটি  ওয়েবসাইটের গুরুত্ব অনেক। কারণ একটি ওয়েবসাইট আপনার কাস্টমারদের বিশ্বাস যোগাতে সাহায্য করে, তারা আপনার প্রোডাক্ট এর গুণগত মান সম্পর্কে ভালো ধারণা পোষণ করে। আপনি আপনার ওয়েবসাইট এ  ভালোভাবে প্রোডাক্টগুলো ডিসপ্লে করতে পারবেন এবং এর বিস্তারিত তুলে ধরতে পারবেন। ই-কমার্স বিজনেস ওয়েবসাইট এর মাধ্যমে লেনদেনগুলো নিরাপদে করা যায়। তাই আপনার ই-কমার্স বিজনেস টা কে সহজ এবং বড় করতে ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট এর বিকল্প নেই। এখন হয়তো ভাবছেন কেনো আমি ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট এর কথা বলছি। চলুন জেনে নেওয়া যাক ই-কমার্স ওয়েবসাইট ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে কেন তৈরি করা উচিৎ। 

ওয়ার্ডপ্রেসঃ 

ওয়ার্ডপ্রেস হলো বর্তমানের সবচেয়ে জনপ্রিয় একটি ওয়েবসাইট তৈরি করার সফটওয়্যার। ২০০৩ সালে সর্বপ্রথম এটি আবিষ্কার করেন আমেরিকার ওয়েব ডেভেলপার Matthew Charles Mullenweg এবং Mike Little. প্রতিনিয়ত ওয়ার্ডপ্রেস আপডেট হচ্ছে এবং দিন দিন এর জনপ্রিয়তা বাড়ছে। বর্তমান বিশ্বের ৩৫% এর বেশি ওয়েবসাইট ওয়ার্ডপ্রেস দ্বারা তৈরি। অর্থাৎ আপনি দিনে যদি ৩টা ওয়েবসাইট ভিজিট করে থাকেন তার ভেতর একটি ওয়েবসাইট ওয়ার্ডপ্রেস দ্বারা তৈরি। ২০০৩ সালে আবিস্কৃত এই কন্টেন্ট ম্যানেজমেন্ট সিস্টেমটার জনপ্রিয়তা দিন দিন অত্যধিক হারে বেড়ে চলেছে। কারণ আপনার ই-কমার্স বিজনেস ওয়েবসাইট টি যদি ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে করান তাহলে এটি আপনার অর্থের সাশ্রয় করবে। ওয়ার্ডপ্রেস এ অসংখ্য থিম এবং প্লাগিন রয়েছে। যা ব্যবহার করে আপনার ওয়েবসাইট এর ফাংশনালিটি ইনরিচ করতে পারবেন। ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট ব্যবহার করা এবং তৈরি করাও সহজ। কারণ ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট তৈরি করতে এইচ.টি.এম.এল, পি.এইচ.পি, জাভাস্ক্রিপ্ট এর অপ্রোয়জন পরে না। তাই দিন দিন ওয়ার্ডপ্রেস ব্যবসায়ী এবং ওয়েব ডেভেলপার সবার কাছেই জনপ্রিয় হয়ে উঠছে।আপনি চাইলে রেডিমেড ওয়েবসাইটও কিনে নিতে পারেন । আমরা দিচ্ছি সাশ্রয়ী মূল্যে ভালো মানের রেডিমেড ওয়েবসাইট। যা আপনি নিজেই খুব সহজেই পরিচালনা করতে পারবেন।

যে ৬ কারণে ই-কমার্স ওয়েবসাইট ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে তৈরি করবোঃ 

ওয়ার্ডপ্রেস এ রয়েছে অসংখ্য ফ্রি এবং পেইড থিম, প্লাগিন, লে আউটসহ আরও অনেক কিছু। তাই একজন ব্যবসায়ীর প্রথম পছন্দ হলো ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট। ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট এর আরও কিছু সুবিধা নিচে আলোচনা করা হলো।  

১. সাশ্রয়ী মূল্যের ওয়েবসাইটঃ 

অন্যান্য  সিস্টেম ব্যবহার করে ওয়েবসাইট বানাতে আপনার যে খরচ হবে তার চেয়ে ওয়ার্ডপ্রেস এর মাধ্যমে আপনার বিজনেস এর ওয়েবসাইট বানালে অনেক কম খরচ হবে। যেহেতু এটি অনেক বেশি সাশ্রয়ী এবং জনপ্রিয় তাই অনেক ওয়েব ডেভেলপার পেয়ে যাবেন যারা ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে ওয়েবসাইট বানিয়ে থাকে। তাই আপনার ই-কমার্স ওয়েবসাইট বানাতে ভোগান্তিতে পড়তে হবে না, অনেক ওয়েব ডেভেলপার পেয়ে যাবেন যারা ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে ওয়েবসাইট বানায়। আপনার ডিমান্ড কেমন তা শেয়ার করবেন এবং একজন ওয়েব ডেভেলপার আপনার ডিমান্ড অনুযায়ী ওয়ার্ডপ্রেস এর মাধ্যমে ওয়েবসাইট টি কে কাস্টমাইজড করে দিবে। অথবা রেডিমেড ওয়েবসাইটও কিনে নিতে পারেন । আমরা দিচ্ছি ভালো মানের ও কম দামে রেডিমেড ওয়েবসাইট। আপনি নিজেই খুব সহজেই পরিচালনা করতে পারবেন।

ই-কমার্স ওয়েবসাইট

২.সহজে ব্যাবহার যোগ্যঃ

ওয়ার্ডপ্রেস এমন একটি সিস্টেম যা সুন্দর ভাবে আপনার ই-কমার্স ওয়েবসাইট এর কন্টেন্টগুলো কে ম্যানেজ করে। অর্থাৎ এর মাধ্যমে আপনি আপনার ই-কমার্স বিজনেস ওয়েবসাইট এর ডিজাইনগুলো কে এড করতে পারবেন, কন্টেন্টগুলো কে সহজেই এডিট এবং আপলোড করতে পারবেন। ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে তৈরি ওয়েবসাইট এ একটি নতুন পোস্ট আপলোড করা শুধু কয়েকটি ক্লিক এর বেপার। তাই আপনি যদি ওয়েবসাইট সম্পর্কে খুব বেশি পারদর্শী নাও হন তাও আপনি ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে তৈরি করা ওয়েবসাইট অনায়াসে ব্যবহার করতে পারবেন। 

৩.ওপেন সোর্স প্লাগিনঃ 

প্লাগিন হচ্ছে ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট এর এমন একটি বিশেষ টুলস যা বিশেষ কিছু ফাংশনাল কমান্ড অনুসরণ এর মাধ্যমে একজন বিজনেস ম্যান অথবা যে কোন ইউজার এর কাজের চাহিদা পূরন করে থাকে। ওয়ার্ডপ্রেসে অসংখ্য প্লাগিন রয়েছে। ওয়ার্ডপ্রেস এর চাহিদা দিন দিন বাড়ার অন্যতম একটি কারণ হলো এই প্লাগিন।  প্লাগিন ব্যবহার করে আপনি ওয়েবসাইট এর অনেক কাজ নিয়ন্ত্রণ করতে পারবেন। ওয়ার্ডপ্রেস এর প্লাগিন ডিটেক্টরি তে এমন অনেক প্লাগিন রয়েছে যা দিয়ে আপনি আপনার ওয়েবসাইট এর কাঠামো এবং কন্টেন্টগুলো কে ম্যানেজমেন্ট করতে পারবেন। ওয়ার্ডপ্রেস এ অনেক প্লাগিন রয়েছে তন্মধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয় প্লাগিন হলো উকমার্স। এটি স্পেশাল ভাবে ই-কমার্স ওয়েবসাইট এর জন্য বানানো। আর আপনি অনেক ওয়েব ডেভেলপার পেয়ে যাবেন যারা ওয়ার্ডপ্রেস এর প্লাগিন গুলো দক্ষতার সাথে ব্যবহার করতে পারে। তাই আপনার ই-কমার্স ওয়েবসাইট বানাতে অবশ্যই ওয়ার্ডপ্রেস ব্যবহার করা উচিৎ। 

৪.পেমেন্ট গেটওয়েঃ 

ই-কমার্স ওয়েবসাইট তৈরির সময়ই আপনার খেয়াল রাখতে হবে কাস্টমার কোন ওয়েতে আপনাকে পেমেন্ট করবে। সেটা হতে পারে ক্যাশ অন ডেলিভারি অথবা কোন ডিজিটাল পেমেন্ট সিস্টেম। ওয়ার্ডপ্রেস ব্যবহার করে পেমেন্ট গেটওয়ে এখন আরও সহজ। প্লাগিন ব্যাবহার করে একজন ওয়েব ডেভেলপার আপনার পেমেন্ট গেটওয়ে মেথড টি বিকাশ, নগদসহ অন্যান্য মোবাইল ব্যাংকিং এর মাধ্যমে করে দিবে। 

৫.ডাইনামিক ই-কমার্স থিমঃ 

যারা নতুন বিজনেস ম্যান তারা অনেকেই কনফিউশান এ পরে যায় তাদের ওয়েবসাইট এর জন্য কি ধরনের থিম সিলেক্ট করবে। কিন্তু চিন্তার কি কোনো বিষয় আছে যেখানে ওয়ার্ডপ্রেসে রয়েছে অসংখ্য থিম? না, চিন্তার কোন কারণ নেই। ওয়ার্ডপ্রেসে অসংখ্য ফ্রি এবং পেইড থিম রয়েছে। এখানে আপনি আপনার পছন্দসই থিম বাছাই করে অভিজ্ঞ ওয়েব ডেভেলপার দ্বারা সেটি কে কাস্টমাইজড করে নিতে পারবেন। 

৬.হাই লেভেল সিকিউরিটিঃ 

ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে তৈরি ওয়েবসাইট দ্রুত জনপ্রিয়তা অর্জন করার আরও একটি কারণ হলো এর হাই লেভেল সিকিউরিটি। এখানে নিশ্চিতে সবাই বিজনেস করতে পারবে। উপর্যুক্ত কারণ ছাড়াও আরও অনেক গুরুত্বপূর্ণ বিষয় রয়েছে যার জন্য ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট সকল বিজনেস ম্যান এর কাছে জনপ্রিয়। এটি এস.ই.ও ফ্রেন্ডলি হওয়ায় দ্রুত একটি ওয়েবসাইট গুগলে র‍্যাংক করে এবং বিজনেস এর প্রসার ঘটে। 

পরিশেষেঃ 

“প্রচারেই প্রসার” এই ছোট্ট বাক্যটি কে যে ব্যবসায়ী বুকে লালন করতে পারবে এবং সেই অনুযায়ী নিজের বিজনেস এর প্রচার করতে পারবে, সে অবশ্যই সফলতা পাবে। আর বিজনেস এর ব্র‍্যান্ডিং এবং প্রচার করার সবচেয়ে ভালো মাধ্যম হলো ওয়ার্ডপ্রেস ই-কমার্স বিজনেস ওয়েবসাইট। একটি ওয়েবসাইট কে গুগলের ফার্স্ট পেজে র‍্যাংক করাতে পারলে আপনার ওয়েবসাইট এ ট্রাফিক আসবে। আর ট্রাফিক আসলে সেল জেনারেট হবে এবং আপনার বিজনেস এর পাবলিসিটি ও বেড়ে যাবে। আর ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট ব্যবহার অনেক সহজ এবং সাশ্রয়ী। তাই আপনার বিজনেস এর জন্য যদি একটি ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট বানাতে চান তাহলে আজই ইয়াপ্পোবিডি এর সাথে যোগাযোগ করুন। আমরা সাশ্রয়ী মূল্যে আপনাকে আপনার পছন্দসই ওয়েবসাইট কাস্টমাইজড করে দিবো এবং মেইনটেইন এর সমস্ত দায়িত্ব নিবো ৷ একমাত্র আমরাই দেশ সেরা ওয়েব ডেভেলপার দ্বারা ওয়েবসাইট ডেভেলপ করিয়ে থাকি। আমরা পূর্ববর্তী তে গ্রাহক যেকোনো ধরনের সাপোর্ট চাইলে তা দিয়ে থাকি। গ্রাহকের সন্তুষ্টি-ই আমাদের আগামী দিনে পথ চলতে অনুপ্রেরণা যোগায়।

 

Facebook Comment