বিগেনারদের জন্য ফেসবুক অ্যাড এর গাইডলাইন

বিগেনারদের জন্য ফেসবুক অ্যাড এর গাইডলাইন

আপনি কি ফেসবুকে বিজ্ঞাপন দিতে আগ্রহী, অথচ জানেন না কিভাবে ফেসবুক অ্যাড চালু করতে হয় এবং কোথায় থেকে শুরু করবেন। আজকে আমাদের এই গাইডলাইনে আপনি ফেসবুক বিজ্ঞাপনের শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত  জানতে যাচ্ছেন। 

আমরা শুরু করবো কেন আপনার ফেসবুক এর বিজ্ঞাপন প্লাটফর্ম ব্যবহার করা উচিত এবং আমরা একটি হাতে কলমে ফেসবুক বিজ্ঞাপন তৈরি করে দেখবো।

এবং আমি গ্যারান্টি দিতে পারি এই গাইডলাইন  শেষে আপনি ফেসবুক বিজ্ঞাপনের একজন বস বলে নিজেকে দাবি করবেন। আপনি যদি তা নাও হতে পারেন তাহলে, একটি কিলার ফেসবুক অ্যাড ক্যাম্পেইন চালু করার মত সকল উপাদান আপনার হাতের নাগালেই থাকবে।

আপনার ব্যবসার মার্কেটিং সোশ্যাল মিডিয়াতেই কেন করবেন?

বিগেনারদের জন্য ফেসবুক বিজ্ঞাপন এর  গাইডলাইন

  • ফেসবুক বিজ্ঞাপন প্লাটফর্ম কেন ব্যবহার করবেন
  • ফেসবুক বিজ্ঞাপনের ধরন
  • ফেসবুক বিজ্ঞাপন কিভাবে কাজ করে

ফেসবুক বিজ্ঞাপন প্লাটফর্ম কেন ব্যবহার করবেন?

বর্তমানে ফেসবুকের প্রায় ১.৭ বিলিয়ন এরও বেশি দৈনিক অ্যাকটিভ ইউজার আছে, যা ফেসবুককে দুনিয়ার সবথেকে বড় সোশ্যাল মিডিয়া প্লাটফর্ম হিসাবে প্রস্তুত করেছে। দুশ্চিন্তার কোন কারণই নেই, কে আপনার টার্গেটেড অডিয়েন্স, ফেসবুক বিজ্ঞাপন খুব সহজ একটা বাজি কারণ আপনার সম্ভাব্য গ্রাহকের মোটা একটা অংশ ফেসবুকে থাকবেই। এবং ফেসবুকের অডিয়েন্স পরিধি দিন দিন বাড়তেই আছে এবং আশা করা যায় অব্যাহত থাকবে।

ফেসবুক ব্যবহারকারী

ফেসবুকে শুধু তার একরাশ অডিয়েন্স সমাগম দেখেই আমাদের বিজ্ঞাপনে আকৃষ্ট করেনা, বরং সাথে আমাদের এটাও মনে রাখা উচিত ফেসবুকের প্রতি একটিভ ইউজার প্রতিদিন গড়ে প্রায় ১ঘন্টা করে সময় ব্যয় করে থাকে।

এবং ফেসবুক বিজ্ঞাপনের অ্যাডভান্স অডিয়েন্স সিলেকশন অপশনও আমাদের ফেসবুকে বিজ্ঞাপন দেওয়ার জন্য উদ্বুদ্ধ করে।

আপনি যেসব ক্যাটাগরির উপর টার্গেট করে ফেসবুক বিজ্ঞাপন দিতে পারেন

  • লোকেশন
  • লিঙ্গ
  • বয়স
  • আগ্রহ/পছন্দ
  • আচরনবিধি/গতিবিধি
  • জীবনক্র
  • ইত্যাদি

ফেসবুকের অনেক ধরনের অ্যাডভার্টাইজিং টুলস আছে যেগুলোর ব্যবহার করে আপনি আপনার বিক্রয় মেসেজ সহজেই আপনার সম্ভাব্য গ্রাহকদের টার্গেট করে তাদের কাছে পৌছেঁ দিতে পারেন। আপনি ফেসবুকে বিভিন্ন ধরনের অ্যাড ম্যাটেরিয়ালস যেমন: টেক্সট, ইমেজ, ভিডিও, ইভেন্টস, লিংকস এবং অফার ইত্যাদি  ব্যবহার করে বিজ্ঞাপন দিতে পারেন।

সাধারনত আপনি আপনার কল্পনা অনুযায়ী যদি কোন বাজার বিশ্লেষণ করে থাকেন, ফেসবুক আপনাকে তাদের নিকটেও পৈৗছানোর অনুমতি বা সুযোগ দিয়ে থাকে।

সর্বোপরি, ফেসবুক বর্তমানে ইন্সটাগ্রাম এর মত একটি প্লাটফর্মের অধিকারি, তাই আপনি চাইলেই খুব সহজে একই ক্যাম্পেইনের মাধ্যমে উভয় প্লাটফর্মের গ্রাহকদের বিজ্ঞাপর দেখানো যেতে পারে। বিশ্বব্যপি দৈনিক ৫০০ মিলিয়নেরও বেশি ইনস্টাগ্রাম ব্যবহাকারীর স্টোরি, আপনার বিজ্ঞাপন প্রদানের খাটুনিকে আরো ইতিবাচক করে তুলবে এটাই স্বাভাবিক।

ফেসবুক অ্যাডের ধরন

আমরা এই ব্লগ পোস্টের মাধ্যমে সংক্ষিপ্ত আকারে প্রত্যেক ধরনের ফেসবুক অ্যাডের বর্ণনা দেওয়ার চেষ্ঠা করবো। সুতরাং আমরা আশা করি আপনি প্রতিটি অ্যাডের ধরনের উপর মনোনিবেশ করবেন।

ভিডিও অ্যাড

ফেসবুক ভিডিও অ্যাড

ফেসবু ভিডিও অ্যাড, বিজ্ঞাপন প্রদানকারীকে তার প্রোডাক্ট/সেবার বিভিন্ন ধরনের ফিচার একটি সুন্দর ভিজুয়ালাইজেশন এবং সাউন্ডের মাধ্যমে উপস্থাপন করার মত স্বাধীনতা দিয়ে থাকে।

ইমেজ অ্যাড

ফেসবুক ইমেজ অ্যাড

ইমেজ অ্যাড একটি উন্নতমানের ভিজুয়াল সহ গ্রাহকদের আপনার ওয়েবসাইট অথবা অ্যাপের প্রতি আকৃষ্ট করে থাকে।

কালেকশন অ্যাড

কালেকশন অ্যাড

ফেসবুকের কালেকাশন অ্যাড, আপনার একটি নির্দিষ্ট ক্যাটেলগের উপর ভিত্তি করে গ্রাহকদের সামনে উপস্থাপন করে থাকে। এবং গ্রাহকদেরকে একটি ক্লোজার লুক দিতে সহায়তা করে।

ক্যারোসল অ্যাড

ক্যারোসল অ্যাড

ক্যারোসল অ্যাডে আপনি এক থেকে দশটি পর্যন্ত ইমেজ অথবা ভিডিও একই অ্যাডে সোকেজ করাতে পারেন। সবথেকে মজার ব্যাপার হলো ক্যারোসল অ্যাডে আপনি প্রতিটি ইমেজ অথবা ভিডিওতে অলাদা আলাদা লিং সেট করতে পারবেন।

ইনস্ট্যান্ট এক্সপেরিয়েন্স অ্যাড

ইনস্ট্যান্ট এক্সপেরিয়েন্স অ্যাড

ইনস্ট্যান্ট এক্সপেরিয়েন্স অ্যাড আপনাকে একটি ফুল স্ক্রিন এবং মোবাইল অপটিমাইজ অ্যাডের সুবিধা দিয়ে থাকে। এবং স্যোয়াইপ করার মাধ্যমে গ্রাহকগন আপনার প্রোডাক্ট পেজে যেতে  পারে।

লিড জেনারেশন অ্যাড

লিড জেনারেশন অ্যাড

ফেসবুকের লিড জেনারেশন অ্যাড, আপনার ব্যবসার প্রতি আগ্রহী কাস্টমারদের কন্টাক ইনফরমেশন সংগ্রহের এক অনন্য মাধ্যম, যার মাধ্যমে আপনি বার বার তাদের নিকট মার্কেটিং করতে পারবেন। আপনি চাইলে লিড জেনারেশন অ্যাড ভিডিও,ইমেজ এবং ক্যারোসল এই তিন ধরনের অ্যাডের মাধ্যমেই করতে পারবেন।

অফার অ্যাড

অফার অ্যাড

যেকোন ধরনের অফার/ডিস্কাউন্ট কে না পছন্দ করে। অফার  অ্যাড ভিডিও,ইমেজ এবং ক্যারোসল এই তিন ধরনের অ্যাডের মাধ্যমেই উপস্থাপন করতে পারবেন।

ব্র্যান্ড অ্যাওয়ারনেস অ্যাড

ব্র্যান্ড অ্যাওয়ারনেস অ্যাড

ফেসবুক আপনার ব্র্যান্ডের পরিচিতি ও অ্যাওয়ারনেস বৃদ্ধির জন্য ব্যতিক্রম-ধর্মী কিছু অ্যাডের প্রচলন আছে। যেমন: পোস্ট এনগেইজমেন্ট, ইভেন্ট রেসপন্স এবং পেজ লাইক।

পোস্ট এনগেইজমেন্ট

ফেসবুকের যেকোন ধরনের পোস্ট আপনি এনগেইজমেন্ট পাওয়ার জন্য ( লাইক, শেয়ার, ভিউস, কমেন্টস) পোস্ট বুস্ট করতে পারেন।

ইভেন্ট রেসপন্স অ্যাড

ইভেন্ট রেসপন্স অ্যাড আপনার ইভেন্টের অ্যাওয়ারনেস বৃদ্ধিতে এবং আপনার ইভেন্টে রেসপন্স ড্রাইভ করে। আপনি ইমেজ এবং ভিডিও ফরমাটে ইভেন্ট রেসপন্স অ্যাড চালাতে পারেন।

পেজ লাইক অ্যাড

আপনি যদি আপনার ফেসবুক পেজে অধিক মাত্রায় ট্রাফিক ড্রাইভ করাতে চান, পেজ লাইক অ্যাড আপনার সেই লক্ষ্যে পৈৗছাতে সাহায্য করবে। আপনি ইমেজ এবং ভিডিও এই অ্যাডে ব্যবহার করতে পারবেন।

এবার আমরা জেনে নেব ফেসবুক অ্যাড কিভাবে কাজ করে

ফেইসবুক আমাদের প্রোফাইল থেকে আমাদের নাম, বয়স, ইমেইল এড্রেস, বিভিন্ন পেইজ লাইক ও এক্টিভিটিস যেভাবে ট্র্যাক করছে ঠিক একইভাবে আমরা কোন মোবাইল ডিভাইস, ব্রাউজার, ফোনের নেটওয়ার্ক ও লোকেশন থেকে ফেইসবুক ব্যবহার করছি সেই তথ্যও রাখছে। এর পাশপাশি যখন আমরা ফ্রেন্ডদের সাথে চ্যাট করি, ঐ ফ্রেন্ডের লোকেশনও ফেইসবুকের কাছে আছে, বিভিন্ন ইভেন্ট যেমন বিয়ে করার পর ফেইসবুকে যার সাথে বিয়ে হয়েছে তাকে ট্যাগ করে পোষ্ট দিচ্ছি, কাছের বন্ধুর জন্মদিনে উইশ করছি… এই সব তথ্যই ফেইসবুকের কাছে আছে।

এই তথ্যগুলো চারটি মূল ক্যাটাগরিতে ফেইসবুক ভাগ করে বিগডেটা সলিউশনের মাধ্যমে এডভার্টাইজারদের এড চালানোর সুযোগ করে দেয়।

ক্যাটাগরি গুলো হচ্ছে

  • লোকেশন : যেই লোকেশনের টার্গেট অডিয়েন্স আমাদের বিজ্ঞাপন দেখবে
  • ডেমোগ্রাফিক : টার্গেট অডিয়েন্স বয়স, জেন্ডার, চাকরি রিলেটেড ইনফরমেশনগুলো এই ক্যাটাগরি থেকে সিলেক্ট করতে পারবেন
  • ইন্টারেস্ট : টার্গেট অডিয়েন্স এর কোন কোন পেইজে, কি ধরণের এক্টিভিটিসে লাইক দেওয়া আছে
  • বিহেবিয়র : টার্গেট অডিয়েন্স ফেইসবুক কোন ডিভাইস, ব্রাউজার ও নেটওয়ার্ক দিয়ে ব্যবহার করছে তা এই সেগমেন্ট থেকে সিলেক্ট করতে পারবেন

এই চারটি ক্যাটাগরির কম্বিনেশন করে আমরা চাইলে ফেইসবুকে এড দেখাতে পারবো। যেমন ধরুন আপনি চাচ্ছেন ঢাকার খিলগাও এলাকায় ২৫-৩০ বছর বয়সী যেসকল পুরুষ গত ৩ মাসে বিয়ে করেছে এবং যারা আইফোন ইউজ করছে শুধুমাত্র তারাই আমাদের বিজ্ঞাপন দেখবে আগামী ৭ দিনের জন্য।

তো দেখুন আমাদের এই সব চাওয়া কীভাবে ফেইসবুকে এডের মূল চারটি সেগমেন্টের সাথে খাপ খেয়ে যাচ্ছে! আর আপনি যখন এভাবে টার্গেট অডিয়েন্স সিলেক্ট করবেন তখন আপনি আসলে জানতে পারবেন এই সিলেকশন ক্রাইটেরিয়াগুলোর সাথে ম্যাচ করে খিলগাওতে এই মূহুর্তে কতজন ফেইসবুক ইউজার আছে, এবং আপনার কত টাকার এড বাজেট লাগবে। এভাবেই মূলত ফেইসবুক বিজ্ঞাপন কাজ করে।

আর যদি আপনি আপনার ব্যবসা সামলাতেই ব্যস্ত হয়ে থাকেন, তাহলে আপনার ফেসবুক অ্যাডভার্টাইজমেন্ট দায়ভার দিতে পারেন ইয়াপ্পোবিডি এর উপর। আমাদের প্রাইসিং এবং সার্ভিস সম্পর্কে জানতে ভিজিট করুন

Facebook Comment