You are currently viewing গুগল ইনডেক্সিং কি? এবং এটি কিভাবে কাজ করে?

গুগল ইনডেক্সিং কি? এবং এটি কিভাবে কাজ করে?

প্রত্যেকেই চায় গুগল তার ওয়েবসাইটকে ইউজারদের সার্চ ইন্টেন্ট এর ভিত্তিত্বে সার্চ ইন্জিনের টপে যেন স্থান দেয়। কারন সমস্থ ওয়েব ট্রাফিকের প্রায় ৯৩% ট্রাফিক আসে সার্চ ইন্জিনগুলো থেকে, তাই গুগলে র‌্যাংক করতে পারলে সম্ভব্য কাস্টমারদের কাছে পৌছানে এবং সেখান থেকে বিক্রয় নিশ্চিত করা তুলনামূলকভাবে অনেকটাই সহজ হয়ে যায়। গুগল ইনডেক্সিং কি? এবং এটি কিভাবে কাজ করে? সেই বিষয়টিই আজ বিস্তরভাবে জানার চেষ্টা করবো।

প্রতিটি ওয়েবসাইট গুগলের নাম্বার ওয়ান পজিশনে র‌্যাংকিং ধরে রাখতে পারেনা। তাই গুগল এর অ্যালগরিদম এমনভাবে কাজ করে যাতে করে ইউজার এর ব্যবহারের পজিটিভ ইম্প্যাক্ট এর উপর ভিত্তি করে র‌্যাংক প্রদান করে থাকে।

তবে গুগলে আপনার সাইট এর নির্দিষ্ট কোন ওয়েব পেজ অথবা কিওয়ার্ড র‌্যাংক করানোর আগেও আপনার যা করা উচিৎ তা হলো আপনার যে একটা ওয়েব সাইট আছে সেটা গুগলকে জানানো। আর এই বিষয়টিই হলো গুগল ইনডেক্সিং। আর যদি আপনি আপনার যে একটা ওয়েবসাইট আছে এই বিষয়টি গুগলকে না জানান। তাহলে ওয়েবসাইটটে হাজার হাজার অর্টিকেল পাবলিশ করেও আপনি কোন ফল পাবেন না। আর এজন্যই গুগল ইনডেক্সিং এত গুরুত্বপূর্ণ।

তাহলে আজকে আমাদের এই ব্লগ পোস্টের মাধ্যমে জানা যাক, গুগল ইনডেক্সিং কি? এবং সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন (এসইও) এর ক্ষেত্রে এটি কিভাবে কাজ করে। আর যদি আপনি সাশ্রয়ী মূল্যে এসইও এর ফুল প্যাকেজ সার্ভিস নিতে আগ্রহী হয়ে থাকেন তাহলে, এখনি ইয়াপ্পোবিডি এর সাথে যোগাযোগ করতে পারেন।

 

গুগল ইনডেক্সিং কি (What is Google indexing)?

গুগলের সার্চ ইনডেক্সিং মূলত গুগলে সাবমিটকৃত ওয়েবসাইটগুলোকে যাতে এর ব্যবহারকারীরা নির্দিষ্ট কিওয়ার্ড এর দ্বারা অনুসন্ধানের পর খুজে পায় তার জন্য ফলাফল হিসাবে সর্বউকৃষ্ট রেজাল্ট সরবরাহ করার জন্য এনেছিল। যদিও বর্তমানে এমটি মনে হতে পারে গুগল আপনাকে ইন্টারনেটে কোন তথ্য খুজে বের করে দেওয়া জন্য যথেষ্ট, তবে  এক্ষেত্রে অনুসন্ধানের ফলাফলগুলিতে কেবলমাত্র ইনডেক্সকৃত সাইটগুলি উপস্থিত হতে পারে।

এবং ‍গুগল তার তথ্য ভান্ডারকে সমৃ্দ্ধশীল করতে প্রতিনিয়ত নতুন সাইট ‍গুলোকে ক্রল করতে থাকে। আর এটাই হলো মূলত গুগল ইনডেক্সিং। আর গুগল ওয়েবসাইটগুলো ক্রল করতে যে বট ব্যবহার করে তাকে ওয়েব স্প্যাইডারও বলা হয়ে থাকে।

গুগল ইনডেক্সিং এত গুরুত্বপূর্ণ কেন?

আপনি যদি গুগলের মাধ্যমে এর ব্যবহারকারীদের কাছে এবং আপনার সম্ভাব্য কাস্টমারদের কাছে পৌঁছাতে চান তবে আপনার ব্যবসায়িক ওয়েবসাইট এর জন্য ‍গুগল ইনডেক্সিং একটি গুরুত্বপূর্ণ প্রক্রিয়া। গুগল যদি আপনার ওয়েব সাইটিকে তার সার্চ কোয়েরিতে ইনডেক্স না করে তাহলে আপনার ওয়েবসাইট র‌্যাংক করা তো দূরের কথা প্রথম পেজে হোক আর ১হাজারতম পেজে হোক কোনটাতেই খুজে পাবেন না।

আপনার কাঙ্খিত অডিয়েন্স এর জন্য আপনার ওয়েবসাটটি খুঁজে পাওয়ার সবথেকে ভালো উপায় হলো, আপনি যদি ঢাকায় পান বিক্রি করে থাকেন, তাহলে আপনার অডিয়েন্স যারা তাদের কে টার্গেট করে আপনার কিওয়ার্ড হওয়া উচিৎ “ঢাকার সেরা পান দোকান”।

কিন্তু তার জন্য আপনার সাইটিকে অবশ্যই প্রথমে গুগলে ইনডেক্স করাতে হবে। গুগলে আপনি যদি আপনার ব্যবসায়িক ওয়েবসাটটি ইনডেক্স না করান তাহলে কোন প্রকার অর্গানিক ভিজিটর আশা করতে পারেন না। তাই আপনার ব্যবসার বিক্রয় নিশ্চিতের ক্ষেত্রে গুগল ইনডেক্সিং একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে।

গুগল ইনডেক্সিং কিভাবে কাজ করে?

গুগলের সার্চ রেজাল্ট পেজে কোন ওয়েবসাইটকে আসতে হলে তিনটি ধাঁপ পার হতে হয়। তা হলো,

  1. ক্রলিং
  2. ইনডেক্সিং
  3. র‌্যাংকিং

নিচে এই বিষয়গুলো সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হলো।

ক্রলিংঃ

গুগল আপনার ওয়েবসাইটের সাথে প্রথম যে ইন্টারঅ্যাকশন সেটি হ’ল এটি যখন ক্রল করে। গুগল ক্রলার আপনার সাইটটি বিভিন্ন উপায়ে ডিসকভার করতে পারে – এটি অন্য কোনও সাইটের লিঙ্ক অনুসরণ করেও হতে পারে, বা আপনি সরাসরি নিজের সাইটম্যাপ গুগলে সাবমিট করতে পারেন।

যে কোন ইভেন্টে, একবার যখন কোনও গুগল ক্রলার আপনার সাইটটি ডিসকভার করে, ক্রলার তৎক্ষণাৎ এটিকে ক্রল করে দেবে। অর্থাৎ ওয়েসাইটটিতে কী আছে তা আবিষ্কার করার জন্য পুরো ওয়েবসাইটটি গুগল ক্রলার স্ক্যান করবে। সেটি হতে পারে ওয়েবসাইটে থাকা টেক্সট পড়ে, লেআউট মূল্যায়ন করে এবং ইমেজ/ভিডিও এর মাধ্যমে।

ইনডেক্সিংঃ

গুগলে একবার যখন আপনার সাইটের ক্রল হয়ে গেলে, পরবর্তী ধাপটিতে ইনডেক্সিং হয়। এটি একটি ক্রিটিক্যাল পার্ট – যদি আপনার সাইটটি গুগলের সকল সঠিক নির্দেশনা পূরণ না করে তবে গুগল এটি ইনডেক্স করে না এবং র‌্যাঙ্কিংয়ে সাইটিকে বিবেচনাও করেনা।

কোন ওয়েসাইট গুগলের দ্বারা ইনডেক্স না হওয়ার জন্য যে বিষয়গুলো দায়ী হতে পারে তাহলোঃ

  • সাইট নো-ইনডেক্স করা থাকলে
  • ভ্যালূ ছাড়া কন্টেন্ট
  • ডুপ্লিকেট কন্টেন্ট
  • সাইটম্যাপ না থাকলে
  • ক্যানোনিক্যাল ইস্যু থাকলে

র‌্যাংকিংঃ

প্রক্রিয়াটির তৃতীয় এবং চূড়ান্ত ধাপটি হলো র‌্যাঙ্কিং। এ পর্যায়ে আপনার সাইটের কিওয়ার্ড অনুযায়ি প্রাসঙ্গিস সার্চের জন্য সার্চ ইন্জিন রেজাল্ট পেজে আপনার ওয়েবসাইট প্রদর্শিত হতে পারে এবং আপনার সাইট অর্গানিক ভিজিটর পাওয়া শুরু করতে পারে।

যখনই কেউ কোনও কিছুর জন্য গুগল অনুসন্ধান করেন, গুগল সেই অনুসন্ধানের জন্য সর্বাধিক প্রাসঙ্গিক ওয়েপেজগুলো তথ্য প্রদানের জন্য তার সার্চ ইনডেক্স অনুযায়ি তথ্য প্রদর্শন করে থাকে। আপনার সাইট যদি তাদের মধ্যে থাকে তবে গুগল ফলাফলগুলিতে এটি র‌্যাঙ্ক করবে।

পরিশেষে বলতে চাই, আমাদের এসইও সার্ভিস এম মাধ্যমে, আপনি উপরে উল্লেখিত সমস্ত ইনডেক্সিং এবং র‌্যাঙ্কিংয়ে সংক্রান্ত সকর সহায়তা পাবেন। এবং সেটি অবশ্যই তুলনামূলক বাজেটের মধ্যেই। নিয়মিত আমাদের আপডেট পেতে আমাদের সোশ্যাল মিডিয়া পেজে চোখ রাখুন।

Facebook Comment