You are currently viewing ইউটিউব মনিটাইজেশন কি? ইউটিউব মনিটাইজেশন কিভাবে করবো?

ইউটিউব মনিটাইজেশন কি? ইউটিউব মনিটাইজেশন কিভাবে করবো?

বর্তমানে ইউটিউব হচ্ছে সবচেয়ে জনপ্রিয় অনলাইন ভিডিও শেয়ারিং এবং সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম। প্রায় দুই দশকের ব্যবধানে ইউটিউবের যে অগ্রগতি হয়েছে তা অবিস্মরণীয়। আর এই এডভান্টেজ কে কাজে লাগিয়ে বাংলাদেশসহ পৃথিবীর নানা দেশের ইয়াং জেনারেশন ভিডিও শেয়ারিং এর মাধ্যমে টাকা ইনকাম করছে৷ প্যাশন বা শখের বশে করা কাজটি-ই যদি আপনার পকেটে মোটা অংকের টাকা এনে দেয় তাহলে প্যাশন কে পাত্তা দেওয়াই যায়। আপনি নিশ্চয়ই এতক্ষণে ভেবে ফেলেছেন কিভাবে ইউটিউব থেকে টাকা ইনকাম করা যায়। হ্যাঁ, আপনি ঠিক ধরেছেন, এই মোটা অংকের টাকা আসে ইউটিউব মনিটাইজেশন এর মাধ্যমে। ইউটিউব মনিটাইজড করে বাংলাদেশের অনেক তরুণ-তরুণী হয়েছে নাম করা ইউটিউবার।

এখন আপনিও যদি হতে চান একজন ফেমাস ইউটিউবার তাহলে আজই আপনার ইউটিউব চ্যানেলটি মনিটাইজড করে ফেলুন। সম্পূর্ণ আর্টিকেল টি পড়ার মাধ্যমে আপনি এ সম্পর্কে পূর্নাঙ্গ ধারণা পাবেন ইনশাআল্লাহ। তাই সাথেই থাকুন! 

 

ইউটিউব মনিটাইজেশন কি

মনিটাইজেশন এর আভিধানিক অর্থ হলো মুদ্রায়ণ বা নগদীকরণ। সুতরাং, ইউটিউব মনিটাইজেশন মানে হলো ইউটিউব কে নগদীকরণ করা। সহজ ভাষায় বলা যায়, যে প্রক্রিয়ার মাধ্যমে ইউটিউব কে আপনি আয় যোগ্য করে তুলছেন সেই প্রক্রিয়াটি-ই ইউটিউব মনিটাইজেশন। প্রক্রিয়াটি দ্বারা আপনি বিভিন্ন উপায়ে আয় করতে পারবেন তন্মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো ভিডিও শেয়ারিং, এডভারটাইজিং, অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং, স্পনসরশিপ। উপর্যুক্ত ইনকাম সোর্সগুলোর ভেতরে সবচেয়ে জনপ্রিয় হলো এডভারটাইজিং। Youtube Monetization করার মাধ্যমে আপনি আপনার ভিডিওগুলোর মধ্যে এডভারটাইজারদের কে সুযোগ করে দেন এডভারটাইজ দেওয়ার। মনিটাইজড করার এক পর্যায়ে আপনার একটি গুগল এডসেন্স একাউন্ট খুলতে হয়। আর এই একাউন্টেই আপনার ইউটিউব থেকে অর্জিত সমস্ত টাকা এসে জমা হয় এবং আপনি সেখান থেকে টাকা উত্তোলন করতে পারেন।

বলে রাখা ভালো, এই প্রক্রিয়ার মাধ্যমে আপনি যখন ইউটিউবকে আপনার ভিডিওগুলোর মধ্যে বিজ্ঞাপন প্রদর্শনের অনুমতি দিচ্ছেন, তখন গুগল তার এডভারটাইজিং পার্টনারগুলোর এডস আপনার ভিডিওর মধ্যে ইনক্লুড করে দেয়। আর ভিডিওগুলোর মধ্যে যত টাকার এডস প্রদর্শন করা হবে তার ৪৫% গুগল নিজে রাখে এবং বাকি ৫৫% টাকা আপনার গুগল এডসেন্স একাউন্ট এ গিয়ে জমা হয়।

 

ইউটিউব চ্যানেল মনিটাইজেশন চালু করার নিয়ম

ইউটিউব চ্যানেল মনিটাইজেশন করার কিছু টার্মস রয়েছে। ২০২২ সালের প্রেক্ষাপটে মনিটাইজেশন করার কিছু শর্ত আপনাকে মেনে চলতে হবে। শর্তগুলো হলোঃ

  • প্রথমেই আপনাকে যে শর্তটি পূরণ করতে হবে তা হলো ১ হাজার সাবস্ক্রাইবার আপনার ইউটিউব চ্যানেলে থাকতে হবে।
  • ৪ হাজার ঘন্টা পাবলিক ওয়াচ টাইম প্রযোজ্য হবে 
  • 2 step verification turn on থাকতে হবে।
  • ইউটিউবের কিছু কমিউনিটি স্ট্রাইক বা পলিসি রয়েছে যেগুলো লংঘন করা যাবেনা। যেমনঃ কোনো শিশু নির্যাতনের ভিডিও শেয়ারিং, অন্য কোনো ইউটিউবারের অডিও, ভিডিও কিংবা thumbnail ব্যবহার করা যাবে না। 

উপর্যুক্ত শর্তগুলো মেনে চলার মাধ্যমে আপনি আপনার ইউটিউব চ্যানেল সহজেই মনিটাইজেশন এর জন্য এপ্লায় করতে পারবেন। 

 

ইউটিউব মনিটাইজেশন এর জন্য এপ্লাই করবো যেভাবে

 প্রথমে আপনাকে আপনার ইউটিউব চ্যানেল লগ ইন করতে হবে। ক্রম ব্রাউজার থেকে চ্যানেল ডাশবোর্ডে যেতে হবে। এবার ড্যাশবোর্ডের বাম দিকে থাকা অপশনগুলো নিচের দিকে স্ক্রল করলেই মনিটাইজেশন অপশন টি দেখতে পাবেন। মনিটাইজেশন বাটনে ক্লিক করার সাথে সাথে আপনাকে অন্য একটি পেইজে নিয়ে যাবে।  সেখানে আপনি দেখতে পাবেন আপনার কত ঘন্টা ওয়াচ টাইম, সাবস্ক্রাইবার আছে। আপনার যদি মিনিমাম ১হাজার সাবস্ক্রাইবার, ৪ ঘন্টা পাবলিক ওয়াচ টাইম, ট্যু স্টেপ ভেরিফিকেশন এবং কমিউনিটি পলিসি ঠিক থাকে তাহলে আপনার সামনে Apply now অপশন টি আসবে। এবার apply now option টি তে ক্লিক করুন। ক্লিক করার পর আপনাকে ৩ টি স্টেপ ফলো করতে হবে। স্টেপ ৩টি হলোঃ

  • Review partner program terms
  • Sign-up for Google Adsense 
  • Get Reviewed

YouTube Monetization Apply

 

Step1: Review partner program terms

  • Step 1 এ এসে আপনি নিচের দিকে একটা start option দেখতে পাবেন। সেখানে ক্লিক করুন।
  • ক্লিক করার পর আপনি অনেকগুলো terms and Agreement দেখতে পাবেন। সেগুলো ভালো মতো বুঝে পড়ে নিন। 
  • এবার একদম নিচে আপনি “i accept YouTube partner programme terms” অপশন টি দেখতে পাবেন। সেটায় ক্লিক করুন
  • এবার সব শেষে “Accept terms” বাটনে ক্লিক করে ডান করুন। Congratulations আপনি সফল ভাবে step 1 সম্পন্ন করেছেন।

 

Step2: sign-up for Google Adsense 

এই ধাপটি অন্য ধাপগুলো থেকে তুলনামূলক কঠিন। চলুন দেখে নেই ধাপ ২ কিভাবে সম্পন্ন করতে হবে। 

  • স্টেপ ২ তেও আপনি স্টার্ট অপশনটি দেখতে পাবেন। সেই বাটনে ক্লিক করুন।
  • এবার আপনার সামনে “Do you have an existing account” লেখাটি আসবে। সেখানে ক্লিক করুন।
  • ক্লিক করার পর আপনার সামনে ৩টি অপশন শো হবে। 
  • আপনার যদি গুগল এডসেন্স একাউন্ট না থাকে তাহলে আপনি “No, i don’t have an existing account” অপশনটি নির্বাচন করে Continue option এ ক্লিক করুন।
  • অথবা আপনার যদি আগে থেকেই করা থাকে আপনি সেটি সিলেক্ট করে দিন।
  • যদি একাউন্ট না করা থাকে প্রের ধাপে আপনার সামনে আপনার জি-মেইল একাউন্ট শো করা হবে। আপনার জি-মেইল একাউন্ট সিলেক্ট করুন। 
  • এখন আপনার সামনে গুগল এডসেন্স এর হোম পেইজ টি শো হবে। আপনি সেখান থেকে “your country and territory” অপশনে শুধুমাত্র আপনি যে কান্ট্রিতে বিলং করেন সেটা সিলেক্ট করুন। 
  • তারপর কিছু টার্মস শো করবে সেগুলো ভালো ভাবে পড়ে ইয়েস করে দিতে হবে এবং Create account এ ক্লিক করতে হবে। 
  • এখন আপনার সামনে একটি ইন্টারফেস শো করবে। সেখানে আপনার পারসোনাল ইনফরমেশন চাইবে। সেগুলো ঠিক মতো দেওয়ার পর সাবমিট অপশনে ক্লিক করুন
  • সাবমিট করার পর আপনাকে আবার Channel monetization page এ নিয়ে যাবে। YouTube and Google আপনার ইউটিউব চ্যানেলের সাথে এডসেন্স লিংক করতে প্রায় ৭২ ঘন্টা সময় নিতে পারে। ততক্ষণ ধৈর্য ধরুন। 
  • তারপর আপনি স্টেপ ২ এর সামনে ডান অপশন টি দেখতে পাবেন। সুতরাং আপনি সফল ভাবে স্টেপ ২ সম্পন্ন করেছেন। 

 

Step3: Get reviewed

Step 3 তে এসে আপনাকে ম্যানুয়ালি কিছু করতে হবে না। Step1 and step2 সঠিক ভাবে সম্পন্ন হলে গুগল আপনার ইউটিউব চ্যানেল মনিটাইজেশনটি রিভিউ করবে। রিভিউ করে যদি সব ঠিক থাকে তাহলে আপনি স্টেপ ৩ এর পাশে ডান লেখা দেখতে পাবেন। এখন আপনার চ্যানেল টি মনিটাইজড হয়ে গেছে। এখন থেকে গুগল আপনার ইউটিউব ভিডিও এর মধ্যে বিজ্ঞাপন দিবে এবং সেখান থেকে আপনি টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

ইউটিউব কিভাবে আমাদের টাকা দেয়

ইউটিউব হলো গুগলের একটি সেবা। আর গুগলের অন্যতম আরেকটি সেবা হলো গুগল এডস। যারা বড় বড় বিজনেস ম্যান তারা তাদের পন্য কিংবা সেবা সবার কাছে পৌঁছে দেওয়ার জন্য গুগলকে টাকা দেয়। আর গুগল সেইসব বিজ্ঞাপন দাতাদের বিজ্ঞাপন আপনার ইউটিউব ভিডিওগুলোতে শো করে। যার মাধ্যমে বিজ্ঞাপনটি পৌঁছে যায় সাধারণ মানুষের কাছে। বিজ্ঞাপন দাতার টাকা গুগল ৪৫% নিজে রাখে এবং বাকি ৫৫% টাকা আপনাকে দেয়। কারণ আপনাকে যদি গুগল ইউটিউব এর মাধ্যমে টাকা না দিত তাহলে আপনি শুধু শুধু ভিডিও বানানোর রুচি পেতেন না। 

এতক্ষন জানলেন কিভাবে আপনি একটি চ্যানেল মনিটাইজ করতে পারবেন, তবে এখানে আরো কিছু বিষয় আছে যেমন আপনার চ্যানেলের মনিটাইজ যখন তখন বন্ধও হয়ে যেতে পারে কিছু কারনের জন্য। এখন আসুন সে বিষয় নিয়ে কিছু আলোচনা করা যাক।

 

মনিটাইজেশন যে কারণে বন্ধ হয়ে যেতে পারে

ইউটিউব সবসময় ক্রিয়েটিভ মানুষকে খোঁজে। আপনি যদি অন্যের ভিডিও অর্থাৎ অন্যের ইউটিউবের ওয়াজ কপি করে আপনার ইউটিউব চ্যানেলে পোস্ট করেন তাহলে আপনার ইউটিউব চ্যানেল মনিটাইজেশন বন্ধ হয়ে যেতে পারে। এছাড়াও আপনার ইউটিউব চ্যানেলে যদি পর্নোগ্রাফি বা সেক্সুয়াল ভিডিও কন্টেন্ট থেকে থাকে তাহলে আপনার একাউন্ট বন্ধ হয়ে যেতে পারে৷ এছাড়াও শিশু নির্যাতন, প্রাণী হত্যা অর্থাৎ কমিউনিটি বিরোধী যেকোনো ভিডিও শেয়ার করার মাধ্যমে আপনার মনিটাইজেশন বন্ধ হয়ে যেতে পারে।  সুতরাং আপনাকে নিজের তৈরি কন্টেন্ট দিয়ে সুন্দর ভাবে কাজ করে যেতে হবে সে ক্ষেত্রে এসব সমস্যার কোন বালাই থাকবে না।

 

ইউটিউব চ্যানেল মনিটাইজেশন রিজেক্ট করলে করনীয়

গুগল যদি আপনার মনিটাইজেশন রিজেক্ট করে তাহলে সেটি আপনাকে আপনার প্রদত্ত ই-মেইল এর মাধ্যমে জানিয়ে দিবে। এতে ঘাবড়ানোর কিছু নেই। আপনাকে ৩০ দিন অপেক্ষা করতে হবে। তারপর আপনি পুনরায় দেখবেন ঠিক কোন কারণে গুগল আপনার মনিটাইজেশন রিজেক্ট করলো। কারণগুলো খুঁজে বের করে এবং সেই বিষয়গুলো ঠিক করে নিয়ে  মনিটাইজেশন এর শর্তগুলো মেনে আবার পুনরায় Apply করুন। সব কিছু ঠিক থাকলে আপনি অবশ্যই মনিটাইজেশন পেয়ে যাবেন।

 

বিভিন্ন উপায়ে ইউটিউব থেকে ইনকাম করার উপায়

ইউটিউব থেকে আরো অনেক ভাবে টাকা ইনকাম করা যায়। আসুন কয়েকটি উপায় জেনে নেওয়া যাক।

1. YouTube sponsorship deal or brand deal: 

আপনার ইউটিউব চ্যানেল বড় হোক বা ছোট হোক আপনি আপনার ভিডিওর মাঝে একটি পন্য বা পরিষেবা এড করে $100-$400 ইনকাম করতে পারবেন স্পন্সরশীপ ডিলের মাধ্যমে। 

 

2. Youtube affiliate marketing: 

আপনি সহজেই আপনার ইউটিউব ভিডিওর ডেসক্রিপশন বক্সে বা ভিডিওর মাঝে কোনো অনলাইন শপের প্রোডাক্টসের লিংক এড করে দিতে পারবেন। কেও যদি সেই লিংকে ক্লিক করে পন্যটি ক্রয় করে তাহলে আপনি সেখান থেকে একটি নিদৃষ্ট পরিমান কমিশন পাবেন। 

 

Youtube Monetization

 

3. YouTube লাইভ স্ট্রীমঃ 

ইউটিউব লাইভ স্ট্রীম মনিটাইজেশন করেও আপনি ইনকাম করতে পারবেন। লাইভ স্ট্রীমগুলোতে ভিজিটররা ভিডিও ক্রিয়েটরদেরকে সুপারচ্যাট প্রদান করে থাকে। আর এর মাধ্যমে অর্থ উপার্জন করা যায়।

 

4. YouTube shorts video: 

ইউটিউব ২০২১ সালে ইউটিউবারদের জন্য একটি বিশাল সুবিধা নিয়ে এসেছে। এটি শর্ট ভিডিও ক্রিয়েটরদের জন্য $১০০ মিলিয়ন ফান্ড ঘোষণা করেছে। তাই আপনি চাইলেই এই টাকা লুফে নিতে পারেন শর্ট ভিডিও শেয়ারিং এর মাধ্যমে। 

পরিশেষেঃ

আপনি যদি একজন নতুন ইউটিউবার হয়ে থাকেন এবং সাফল্য খুঁজে না পান এবং ইউটিউব মনিটাইজেশন সার্ভিস প্রভাইড করে এমন একটি এজেন্সি খুঁজে থাকেন তাহলে আমি বলবো আপনি সঠিক যায়গায় এসেছেন। আমরা দীর্ঘ পাঁচ বছর ধরে ডিজিটাল সেবা দিয়ে জনগণের মনে আস্থার যায়গা করে নিয়েছি। তাই আপনিও মনিটাইজেশন সেবা নিন, সফল ইউটিউবার হোন। সেবা নিতে আজই যোগাযোগ করুন আমাদের সাথে।

Facebook Comment